বৃহস্পতিবার ১৯শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার   বৃহস্পতিবার ১৯শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

নাতির ধর্ষনের দায় দাদার উপর দিয়ে ১১ বছরের শিশুর সঙ্গে জোর করে বিয়ে দিল মাতবররা!
প্রকাশ: ১৯ নভেম্বর, ২০২০, ৩:৩৪ অপরাহ্ণ |
অনলাইন সংস্করণ

নাতির ধর্ষনের দায় দাদার উপর দিয়ে ১১ বছরের শিশুর সঙ্গে জোর করে বিয়ে দিল মাতবররা!
নিউজ ডেস্কঃ লম্পট নাতির ‘কুকর্মের’ দায় সালিশিতে স্থানীয় মাতবররা ৮৫ বছর বৃদ্ধ দাদার ওপর চাপিয়ে দিয়েছেন। নাতির ধর্ষণে শিশু অন্তঃসত্ত্বা ও গর্ভপাত ঘটানোর ফল ভোগ করছেন ওই বৃদ্ধ। স্থানীয় মাতবররা সাত সন্তানের জনক ৮৫ বছরের ওই বৃদ্ধের সঙ্গে ১১ বছরের শিশুর বিয়ে দিয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার দুর্গম চরাঞ্চল আমখাওয়া ইউনিয়নের বয়ড়াপাড়া গ্রামে। স্থানীয় লোকজন জানান, স্থানীয় মহিলা মাদ্রাসার পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীর (১১) সঙ্গে সুরমান আলীর বখাটে ছেলে শাহিনের (১৮) শারীরিক সম্পর্ক হয়। এতে ওই শিক্ষার্থী অন্তঃসত্ত্বা হয়। ১০-১২ দিন আগে কবিরাজি চিকিৎসায় গর্ভপাত ঘটানো হয়। বিষয়টি ফাঁস হয়ে যাওয়ায় চলতি সপ্তাহে এ নিয়ে ইউপি সদস্য ও স্থানীয় মাতবররা এ বিষয়ে সালিশ বৈঠক করেন। সালিশে নাতির কুকর্মের দায় চাপিয়ে দেয়া হয় ৮৫ বছরের বৃদ্ধ দাদার ওপর। শেষে বৃদ্ধের সঙ্গেই ওই শিশুছাত্রীর বিয়ে দেয়া হয়। বুধবার দুপুরে সরেজমিন ৮৫ বছরের বৃদ্ধ মহির উদ্দিনের সঙ্গে কথা হয়। তিনি ঠিকমতো কথা বলতে পারেন না, চোখেও ঝাপসা দেখেন। তিনি সাত সন্তানের পিতা। দুই স্ত্রী মারা গেছেন। তৃতীয় বিয়েটি করেছেন ২৭ বছর আগে। বৃদ্ধকে জিজ্ঞাসা করা হয় চতুর্থ বিয়ে কী কারণে করলেন? বৃদ্ধ মহির উদ্দিন বলেন, আমার একটা দোষ বর্তাইয়া বিয়া করাইছে গফুর মাস্টার, কদ্দুছ মাস্টার, নাদু মেম্বারসহ কয়েকজন। আসলে আমি নির্দোষ। এ সময় দাঁড়িয়ে থাকা বৃদ্ধের মেয়ে আবেদা খাতুন বলেন, মেয়েটির গর্ভপাত বড়ি খাইয়ে নষ্ট করা হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার মাদ্রাসাশিক্ষক বলেন, ছেলের ঘরের নাতি দোষ করেছে, এর দায়ভার জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে থাকা ওই বৃদ্ধের ওপর চাপিয়ে শিশুটিকে বিয়ে দেয়া হয়। চর আমখাওয়া ইউনিয়নের সদস্য জয়নাল আবেদীন নাদু বলেন, মুরব্বিদের নিয়ে সালিশ করা হয়। সালিশে অনৈতিক কাজ করায় বৃদ্ধকে ১০ দোররা এবং শাহিনকে ১০টি দোররা মেরে শরীয়ত মতে বিয়ে হয়। তবে তার ছেলে ঘরের নাতি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত না। এ ঘটনার জন্য বৃদ্ধই দায়ী। চর আমখাওয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান আকন্দ জানান, এটা আশ্চর্য ও ন্যক্কারজনক ঘটনা। যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ওসি এমএম মইনুল ইসলাম বলেন, এ ধরনের ঘটনা আমার জানা নেই।




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

পুরোন সংবাদ খুজুন
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  

সর্বাধিক পঠিত

প্রকাশক: সৈয়দ এমরান আলী রিপন

সম্পাদক: রোমান চৌধুরী

মোবাইলঃ ০১৭১১৯৫৭২৬৩ / 09639298200

অফিস : সৈয়দ মহল, জানুকি সিং রোড,কাউনিয়া,বরিশাল

ই-মেইলঃ barisalpress247@gmail.com

Design & Developed by
  রাজিবপুরে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন   ধানবোঝাই ট্রলি উল্টে শিবগঞ্জে নিহত ৭ কৃষক।   রাজশাহীতে বাস থেকে ২৫ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক   উজিরপুর পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী জি.এম.খাঁন শিপনের গণসংযোগ।   ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক ছাত্রীকে ধর্ষণ মামলার রায় আজ।   সম্মিলিত সাংবাদিক পরিষদ বরিশাল জেলা সম্মেলন বাস্তবায়ন আলোচনা সভা।   বরিশালে নগর ভবন সংলগ্ন ফুটপাতে ভাসমান জুতার দোকান, লোকসানের মূখে চকবাজার পাদুকা ব্যবসায়ীরা।   বন্ধ করতে হবে দোকানপাট রাত আটটার মধ্যেই: মেয়র তাপস   জেলা প্রশাসক বরিশালের অভিনব উদ্যোগে পরিযায়ী পাখিদের খাদ্য নিশ্চিতের পাশাপাশি দুর্গাসাগরে ভারসাম্যপূর্ণ ইকোসিস্টেম তৈরি হচ্ছে।   জয়পুরহাটে বেকার যুবকদের বিনামূল্যে অটো রিকশা দিল জেলা পরিষদ   নাটোরে মাস্ক না পরায় ৪০ জনকে দুই ঘন্টার জেল।   নাটোরে এসিল্যান্ডের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে ইতি   বিএম কলেজের শিক্ষক আরাফাত হোসাইনের উপর হামলার প্রতিবাদে শিক্ষকদের মানববন্ধন।   নবাবগঞ্জে মাতৃত্বাকালীন ভাতার নামের তালিকা যাচাই-বাচাইয়ে ইউএনও।   রাজশাহীতে ধানের পিকাপ থেকে ফেনসিডিল উদ্ধার, চালক আটক   নবাবগঞ্জে ভিডিপির গ্রাম ভিত্তিক প্রশিক্ষণে ইউএনও   কলাপাড়া মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের সদস্যের মায়ের মৃত্যুতে দোয়া মোনাজাত।   বিদেশে টাকা পাচার করেছে সরকারি কর্মচারীরা পররাষ্ট্রমন্ত্রী।   আগুন লাগলো ঢাকা সরকারী তিতুমীর কলেজে।   জয়পুরহাটে ছাত্রদলের মিছিলে পুলিশি বাধা
error: কপি করা থেকে বিরত থাকুন !!