বুধবার ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার   বুধবার ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

যৌতুকের যন্ত্রণায় অতিষ্ট রোজিনা
প্রকাশ: ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১০:৪৩ পূর্বাহ্ণ |
অনলাইন সংস্করণ

যৌতুকের যন্ত্রণায় অতিষ্ট রোজিনা
রাইসুল ইসলাম ফুল রাজিবপুর কুড়িগ্রামঃ কুড়িগ্রামের রাজীবপুরে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির অমানুষিক নির্যাতনের শিকার গৃহবধু রোজিনা খাতুন বিচার চায়। যৌতুকের দাবিতে স্বামী শফি আলম কারনে অকারনে, উঠতে বসতে নির্যাতন চালায় রোজিনার ওপর। স্বামীর সঙ্গে নির্যাতনে অংশ নেয় শ্বাশুরি সুফিয়া খাতুনও। সর্বশেষ গত এক মাস আগে ৪ লাখ টাকা যৌতুকের জন্য মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয় স্ত্রীকে। এরপর আর কোনো খোঁজ খবর নেয়া হয়নি। নির্যাতনের শিকার রোজিনা খাতুন তার তিন সন্তান নিয়ে এখন বাবার বাড়িতে অবস্থান করছে। নির্যাতনের শিকার গৃহবধু রোজিনা খাতুন অভিযোগ করে বলেন, ‘কয়েক মাস আগে আমার বাবা মারা যায়। ৪লাখ টাকা যৌতুকের জন্য স্বামী মারপিট করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। তার দুই দিন আগে শ্বাশুরীও আমাকে মারধোর করে। রাতে খাবার দিত না। কারনে অকারনে আমাকে খুব কষ্ট দিত। মাঝে মাঝেই খাবার না দিয়ে যন্ত্রণা দিত আমাকে। বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার সময় বলে দেয় ৪লাখ টাকা না আনলে তোকে তালাকা দিয়া দিব। ছোট ছোট তিনটা সন্তান রয়েছে আমার। এক মাস থেকে বাবার বাড়িতে আছি একবারের জন্য খোঁজখবরও নেয়নি।’অভিযোগে জানা গেছে, ১৫ বছর আগে পারিবারিক ভাবে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার পান্তামমারী গ্রামের সেফাত আলীর মেয়ে রোজিনা খাতুনের সঙ্গে বিয়ে হয় রাজীবপুর উপজেলার বালিয়ামারী ব্যাপারি পাড়া গ্রামের নুর মোহাম্মদ’র পুত্র শফি আলমের। বিয়ের সময় একজোরা গরু ও নগদ ৫০ হাজার টাকা দেয়া হয় জামাইকে। বিয়ের কিছু দিন পর শুরু হয় নির্যাতন। যৌতুকের জন্য নির্যাতনের শিকার রোজিনা খাতুন বাবার বাড়ি থেকে দু’দফায় ১ লাখ টাকা নিয়ে তুলে দেয় স্বামীর হাতে। কিছু ভালো থাকার পর আবার শুরু হয় নিযার্তন। নির্যাতন করে বাড়ি থেকে বের করেও দেয়া হয়। এ নিয়ে পারিবারিক ভাবে একাধিকবার মিমাংশা করেও দেয়া হয়। কিন্তু যৌতুক লোভি শফি আলমের যৌতুক চাহিদা শেষ হয় না। নির্যাতনের শিকার রোজিনার মা বলেন, ‘তাদের ঘরে তিনটি সন্তান রয়েছে। মেয়ের বাবাও মারা গেছে। এখন নতুন করে ফন্দি করছে ৪ লাখ টাকা যৌতুক দিতে হবে। কিন্তু অত টাকা কিভাবে দিব। আমার আরো সন্ত্মান রয়েছে। এক মেয়ের পিছে জমি জিরাত সব শেষ করলে অন্য ছেলেমেয়েরা পথে বসবে। তারপরও মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে আরো এক লাখ টাকা যোগার করেছি কিন্তু মেয়ের শ্বশুর বাড়ির চাহিদা ৪ লাখ টাকাই দিতে হবে। এ অবস্থায় আমরা বড়ই বিপদে আছি।’অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে যৌতুক লোভি শফি আলম বলেন, ‘মাইনসে শ্বশুর বাড়ি থেকে কত কিছু পায়। আর আমি মাত্র ৪ লাখ টাকা চেয়েছি। এই টাকা দিয়ে একটা সিএনজি অটো রিক্সা কিনব। সেটাই দিচ্ছে না। টাকা না দিলে আমি বউ রাখব না। সেটা সাফ সাফ জানিয়ে দিয়েছি।’




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

পুরোন সংবাদ খুজুন
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  

সর্বাধিক পঠিত

প্রকাশক: সৈয়দ এমরান আলী রিপন

সম্পাদক: রোমান চৌধুরী

মোবাইলঃ ০১৭১১৯৫৭২৬৩ / 09639298200

অফিস : সৈয়দ মহল, জানুকি সিং রোড,কাউনিয়া,বরিশাল

ই-মেইলঃ barisalpress247@gmail.com

Design & Developed by
  মোহনগঞ্জে ইঞ্জিনের ধাক্কার লোকাল ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত   তালতলীতে কৃষকলীগের আনন্দ র‌্যালী   মহাখালী সাততলা বস্তির পর এবার মিরপুরের বস্তিতে আগুন   ভোলায় বঙ্গবন্ধু টি-টেন টেপ টেনিস ক্রিকেট লীগের উদ্বোধন   ভোলায় শর্টসার্কিট থেকে চার ঘরে আগুন!! ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি   মুজিব শতবর্ষ ফুটবল টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন ভোরের ডাক!   স্বর্ণের দাম আড়াই হাজার টাকা কমলো ভ‌রিতে   শুধু অবকাঠামো নির্মাণ নয়,অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণও জরুরি   গৌরনদীতে চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার রহস্য উদ্ঘাটন হয়নি \ বাড়ছে লাশের সংখ্যা   মুখ ও মুখশের আড়ালে!   দেশে ১৪ বছরের বেশি বয়সী সব নাগরিককে স্মার্ট কার্ড দেয়া হবে   দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন শনাক্ত ২২৩০ জন,৩২ জনের মৃত্যু   নবাবগঞ্জে এমপি শিবলী সাদিককে সংবর্ধনা ।। হাজারো জনতার উপচে পড়া ভিড়   উজিরপুরে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে তৃর্ননমূলে বাস্তহারা ভূমিহীরা পাবে পাকা ঘর- ইউএনও প্রনতী বিশ্বাস।   পেট্রোল পাম্পে সহকর্মীরা কর্মচারীর শরীরে আগুন দিলেন   পৌরসভার স্বাদ গ্রহন করতে যাচ্ছে নবাবগঞ্জবাসী -শিবলী সাদিক এমপি   চলমান কাজ শেষ না হলে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানপরের কাজ পাবে না : প্রধানমন্ত্রী   নবাবগঞ্জে এমপি শিবলী সাদিককে সংবর্ধনা ।। হাজারো জনতার উপচে পড়া ভিড়   কুড়িগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাছাই মোস্তাফিজুর রহমান সাজু দলীয় মেয়র প্রার্থী নির্বাচিত   জয়পুরহাটে নারী নির্যাতন প্রতিরোধে মতবিনিময় সভা
error: কপি করা থেকে বিরত থাকুন !!