বৃহস্পতিবার ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ৯ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার   বৃহস্পতিবার ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ


জিয়া-জিয়ার স্ত্রী, ছেলে সবার হাতেই রক্তের দাগ | প্রধানমন্ত্রী
প্রকাশ: ১ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ৮:২৪ পূর্বাহ্ণ |
অনলাইন সংস্করণ

জিয়া-জিয়ার স্ত্রী, ছেলে সবার হাতেই রক্তের দাগ | প্রধানমন্ত্রী
নূরী নাজনীন | ঢাকা |
গুম-খুনের রাজনীতি জিয়াউর রহমানই শুরু করে গেছেন বলে জানিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জিয়াউর রহমানের যে চরিত্র সেই একই চরিত্র দেখি খালেদা জিয়ার। একের পর এক হত্যাকাণ্ড অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে কত মানুষকে হত্যা এবং সেখানে ইনডেমনিটি। বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের ইনডেমনিটি দিয়েছিল জিয়াউর রহমান এবং পুরস্কৃত করেছিল। আর খালেদা জিয়া ২০০১ সালে ক্ষমতায় এসেই অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে যাদের দিয়ে মানুষ হত্যা করেছে তাদের ইনডেমনিটি দিয়েছে পুরস্কৃত করেছে। জিয়া, জিয়ার স্ত্রী জিয়ার ছেলে সবার হাতে রক্তের দাগ, তারা এভাবেই রাজনীতি করেছে। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সোমবার (৩১ আগস্ট) বাংলাদেশ ছাত্রলীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনায় সভায় যুক্ত হন। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এর সভাপতিত্বে আলোচনায় সভায় আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন। ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভাট্টচার্য অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, গুম খুনের কথা যারা বলে তাদের প্রশ্ন এই গুম খুন শুরু করেছে কে? এ তো জিয়াউর রহমানই শুরু করেছে। সেনাবাহিনীর অফিসাররা ছুটিতে ছিল চলে আসছে তাদের মেরে ফেলেছে তাদের পরিবার লাশও পায়নি। সাধারন সৈনিক তাদের হত্যা করেছে তাদের পরিবার লাশ পায়নি। তারা একটা চাকরিও পায়নি। মানবতার জীবন যাপন করেছে। এভাবে সারাদেশকে রক্তাক্ত করেছে শুধু ক্ষমতাকে নিষ্কন্টক করার জন্য। সেই একই চরিত্র দেখি খালেদা জিয়ার। তিনি বলেন, জিয়া,খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারা এভাবেই রাজনীতি করেছে। শিক্ষা দিক্ষা তো নাই শুধু গুণ্ডামী আর অত্যাচার খুনের রাজনীতি কায়েম করতে চেয়েছিল। তাদের অকর্ম ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। অগ্নি সন্ত্রাসে মানুষকে পুড়িয়ে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন,আমরা চেয়েছি জাতির পিতার আদর্শ নিয়ে যেন দেশটা এগিয়ে যাওয়া যায়। সেজন্যই আমাদের সকল প্রচেষ্টা। আমরা ক্ষমতায় আসার পর তো প্রতিশোধ নিতে যাইনি। আমরা দেশের উন্নয়নের দিকে নজর দিয়েছি। শিক্ষা দীক্ষার দিকে নজর দিয়েছি। একটা দেশকে সুষ্ঠভাবে পরিচালনা করলে সন্মান ফিরে আসে। সেটাই দেখিয়েছি। তিনি বলেন, যে সন্মান ভুলণ্ঠিত করেছিল ১৯৭৫ সালে জাতির পিতার হত্যার মধ্য দিয়ে আমরা সেই হত্যাকারীদের বিচার করেছি। হত্যাকারীদের বিচারের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে যে ন্যায় বিচার হয় সেটা নিশ্চিত করেছি। এখনো আসামীদের কেউ কেউ পলাতাক আছে, কিন্তু তারপরেও বিচার করেছি। হ্যাঁ এটা ঠিক ষড়যন্ত্রের সাথে যারা জড়িত তাদের এখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে ইতিহাস একদিন বের হবে, এসব খবরও বেরবে, এগুলো পাওয়া যাবে, এটা এক সময় না একময় আসবে। জাতির পিতাকে হত্যা করে তারা ভেবেছিল নাম মুছে ফেলবে, আমাদের বিজয়ের ইতিহাস মুছে ফেলবে। লাখো শহীদের মহান ত্যাগ সেটাও মুছে ফেলবে, লাখো মা বোনেররা তাদের ওপর কি নির্মম অত্যাচার করে সেটাও মুছে ফেলবে। যে আদর্শের উপর দেশ স্বাধীন সেই আদর্শটাই তার ধ্বংস করতে চেয়েছিল।




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

প্রকাশক: সৈয়দ এমরান আলী রিপন

সম্পাদক: রোমান চৌধুরী

মোবাইলঃ ০১৭১১৯৫৭২৬৩ / 09639298200

ই-মেইলঃ barisalpress247@gmail.com
অফিস : সৈয়দ মহল, জানুকি সিং রোড,কাউনিয়া,বরিশাল

Design & Developed by
  অনলাইনে কেনাকাটায় সতর্ক থাকুন   দেশে এক মাসেই ইন্টারনেট ব্যবহারকারী বাড়ল ৩০ লাখ   ৯০ মিনিটে করোনা সনাক্ত করবে এই যন্ত্র   ইউনিসেফকে সৌদির ৪৬ মিলিয়ন ডলার সহায়তা   ব্যবসা যেভাবে ইবাদতে পরিণত হয়   শ্রীলঙ্কা সফরের প্রস্তুতি এগিয়ে নিচ্ছে বিসিবি   করোনা আক্রান্ত ক্রিকেটার আবু জায়েদ রাহী   সুশান্ত মাদক মামলায় এবার আসছে দিয়া মির্জার নাম   সীতাকুণ্ডে ট্রেনে কাটা পড়ে নৌবাহিনীর কর্মকর্তার মৃত্যু   ডাক বিভাগের মহাপরিচালককে অপসারণের সুপারিশ   ব্রুনাইয়ে মানবপাচার: ৩৩ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়া হিমু গ্রেপ্তার   হাটহাজারী থেকে সরিয়ে নেয়া হল আল্লামা শফীর স্মৃতিচিহ্ন   প্রাথমিক স্কুল খোলার বিষয়ে প্রস্তুতির নির্দেশ   চ্যালেঞ্জিং কাজের অধিকারী ডিবি হোক মানুষের আস্থার প্রতীক, বিএমপি কমিশনার   নওগাঁয় ছোট যমনা নদী থেকে এক নারীর ভাসমান লাশ উদ্ধার   ভোলায় কলেজ ছাত্রের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন   নবাবগঞ্জে বিদ্যুৎ স্পষ্ট হয়ে গৃহকর্তা নিহত   বাংলাদেশিদের আকামার মেয়াদ ২৪ দিন বাড়ালো সৌদি | পররাষ্ট্রমন্ত্রী   নাটোরের সিংড়ায় আকস্মিক ঘূর্ণিঝড়ে ৩০টি ঘর বিধ্বস্ত   রাঙ্গাবালীতে ভার্কের গোলটেবিল বৈঠক