রবিবার ২৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার   রবিবার ২৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

গলাচিপায় এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও বয়স্ক-বিধবা ভাতা আত্মসাতের অভিযোগ
প্রকাশ: ২১ এপ্রিল, ২০২২, ১১:৩০ পূর্বাহ্ণ |
অনলাইন সংস্করণ

গলাচিপায় এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও বয়স্ক-বিধবা ভাতা আত্মসাতের অভিযোগ
মু. জিল্লুর রহমান জুয়েল, পটুয়াখালী। পটুয়াখালীর গলাচিপায় সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় বয়স্ক ও বিধবা ভাতা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয় সুবিধাভোগীদের স্বাক্ষর জাল করে মোবাইল একাউন্টের সিম পরিবর্তন করে ভাতার টাকা আত্মসাতের বিষয়টি ধাঁমাচাপা দিতেও মরিয়া হয়ে উঠেছে উপজেলার রতনদীতালতলী ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. হাফিজুর রহমান। এক অনুসন্ধানে গলাচিপা উপজেলা সমাজ সেবা অফিস সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি রতনদীতালতলী ইউনিয়নের রতনদী গ্রামের মুকুল কৃষ্ণ সেন তার মা শোভা রাণীর বয়স্ক ভাতার টাকা না পেয়ে সমাজ সেবা অফিসে খোঁজ নেন। অফিস থেকে জানানো হয়, তার মায়ের স্বাক্ষর জাল করা কাগজে ইউপি সদস্য হাফিজুর রহমান সত্যায়ন করে মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করা হয়েছে। পরিবর্তিত মোবাইল নম্বরেই শোভা রাণীর বয়স্কভাতা উত্তোলণ করে আত্মসাৎ করা হয়েছে। এ ঘটনা জানার পরেই শোভা রাণীর ছেলে মুকুল কৃষ্ণ সেন উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ করেন। এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনার তদন্ত শুরু হয়। চলমান তদন্তে প্রাথমিকভাবে শোভা রাণীসহ ৬ জনের স্বাক্ষর জাল ও টাকা আত্মাসের সত্যতা পেয়েছেন সংশ্লিষ্ট তদন্তকারী কর্মকর্তা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সমাজ সেবা অফিসের এক কর্মকর্তা বলেন, শোভা রাণীর ঘটনাটি প্রকাশ হওয়ার পরই সবাই নড়েচড়ে বসেছেন। ধারণা করা হয় অন্তত ২১ থেকে ৪০ জনের নাম এভাবে পরিবর্তন করা হতে পারে। তবে তদন্ত শেষ হলেই সব কিছু স্পষ্ট করে বলা সম্ভব হবে। রতনদীতালতলী ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের নিজহাওলা গ্রামের ভাতাভোগী জয়নব বিবির ছেলে নূর ইসলাম বলেন, আমার মায়ের ভাতার টাকা অনেকদিন ধরে আসে না। পরে অফিসে খবর নিয়ে জানতে পারি মোবাইল নম্বর কে বা কারা যেন পরিবর্তন করে দিয়েছে। গত রবিবার সকালে ইউপি সদস্য হাফিজুর ফোন দিয়ে জানায় মোবাইলে তিন হাজার টাকা বিকাশে আসছে কিনা। পরে বিকাশ নম্বর চেক করে দেখি স্থানীয় কাটাখালী বাজারের বিকাশ এজেন্ট নূর হোসেনের নম্বর থেকে তিন হাজার টাকা পাঠানো হয়েছে। পরে টাকার বিষয়টি মেম্বার কল দিয়ে আমকে নিশ্চিত করেন। রতনদীতালতলী গ্রামের মাজেদা বেগমের দেবর মো. মোজাম্মেল বলেন, আমার ভাইয়ের বউয়ের ভাতা’র টাকা দীর্ঘদিন ধরে পাই না। অফিসে যেতে চাইলে আমাকে বিভিন্নভাবে সময় নষ্ট করে হাফিজুর মেম্বার বলেন সময় হলেই টাকা পাবেন। এ বিষয়ে অভিযুক্ত রতনদীতালী ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. হাফিজুর রহমান বলেন, বয়স্ক ও বিধবা ভাতার প্রায় ৩৯ জনের মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করা হয়েছে। এটা একটা ভুল ছিল। যেহেতু সবাই আমার ওয়ার্ডের ভোটার তাই আপাতত আমি টাকা ফেরত দিচ্ছি। আমার কাছে আমার আত্মী- স্বজনের ১২টি সিম রয়েছে। তাদের ভাতার টাকাও ফেরত দিচ্ছি। তিনি আরও বলেন, ইতিমধ্যে রতনদীতালতলী ইউনিয়নের কাটাখালী বাজারের জনৈক নূর হোসেন ও উলানিয়া বাজারের আরেকটি বিকাশ নম্বর থেকে ১০ জনকে ৩ হাজার টাকা করে ফেরত দেওয়া হয়েছে বলেও তিনি স্বীকার করেন। এবং বাকিদের টাকাও ফেরত দেওয়া হবে বলে সংবাদটি প্রকাশ না করার ব্যার্থ চেষ্টা করেন ইউপি সদস্য হাফিজুর। এ প্রসঙ্গে রতনদীতালতলী ইউপি চেয়ারম্যান গোলম মোস্তফা খান বলেন, ইতিমধ্যে সকল ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যদেরকে নিয়ে মিটিং করা হয়েছে। বয়স্ক ও বিধবা ভাতা’য় যদি কোন অনিয়ম থেকে থাকে তাহলে তার তালিকা জমা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। অনিয়ম থাকলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে গলাচিপা উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো, অলিউল ইসলাম বলেন, রতনদীতালতলী ইউনিয়নের রতনদী গ্রামের শোভা রাণীর ছেলে মুকুল কৃষ্ণ সেনের অভিযোগ পাওয়ার পরই আমরা বিষয়টি গুরুত্বের সাথে তদন্ত শুরু করি। তদন্ত চলমান আছে। ইতিমধ্যে ওই ইউনিয়নের নিজহাওলা গ্রামের সখিনা বিবি, জয়নব বিবি, মাহিনুর বেগম, সোনাভান বিবি ও দেলোয়ার গাজীর মোবাইল নম্বর পরিবর্তন ও স্বাক্ষর জাল করা হয়েছে। তাদের ফরমে রতনদীতালতলী ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হাফিজুর রহমান সত্যায়ন করেছেন। এখানে স্পষ্টই প্রমাণ রয়েছে ডকুমেন্ট জাল করে অফিসে জমা দেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, গত ফেব্রুয়ারি মাস থেকে এমন ঘটনা ঘটানো হচ্ছে। তদন্ত শেষে চূড়ান্ত প্রতিবেদন তৈরি করে আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রেরণ করবো। তারা বিষয়টি পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। আমরা ভাতাভোগীদের দ্রুত ভাতা পাওয়ার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখছি। প্রাথমিক তদন্তে ৬ জন ভাতাভোগীর স্বাক্ষর জাল করে মোবাইলের সিম নম্বর পরিবর্তন করার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে বলে তিনি জানান। অধিকতর তদন্তে এ সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে পারে। এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশিষ কুমার বলেন, এ ঘটনার তদন্ত চলমান আছে। অপরাধীকে আইনের আওতায় এনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।




সর্বশেষ সংবাদ

পুরোন সংবাদ খুজুন
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  

সর্বাধিক পঠিত

প্রকাশক: সৈয়দ রিপন

সম্পাদক: রোমান চৌধুরী

মোবাইলঃ ০১৭১১৯৫৭২৬৩ / 09639298200

অফিস : জানুকি সিং রোড,কাউনিয়া,বরিশাল

ই-মেইলঃ barisalpress247@gmail.com

Design & Developed by
  ঘোড়াশাল-পলাশ ইউরিয়া সার প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী   খানসামায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী পরিবারে বাড়ি প্রদান ও ছাত্রীদের মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ    হাওরে আর সড়ক নয়, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণের নির্দেশনা   খাদ্য উৎপাদন-মজুত-বিপণনে অনিয়মে হবে সর্বোচ্চ ৫ বছরের জেল   ঈদের আগে-পরে ৬ দিন ফেরিতে ট্রাক পারাপার বন্ধ   সোমবার থেকে লঞ্চের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে   সরকার দেশের জনগণের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করছে : ওবায়দুল কাদের   কম খরচে ভারত গমনেচ্ছুক যাত্রীদের জন্য সুখবর   দ্বৈত ভোটার হতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সনদ লাগবে না   ঈদে বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু   প্লাস্টিক কারখানায় আগুন, নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ১২ ইউনিট   বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে   সবাইকে পহেলা বৈশাখের শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর   আজ পহেলা বৈশাখ   মানুষের নিরাপত্তার দায়িত্ব আমাদের: র‍্যাব ডিজি   ধর্মের সঙ্গে সংস্কৃতির সংঘাত সৃষ্টি ঠিক নয় : প্রধানমন্ত্রী   সারাদেশে ট্রেন চলাচল বন্ধ, রেলের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ধর্মঘট   প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক না রেখে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয় : তথ্যমন্ত্রী   ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৮টায়   প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ৩ ধাপে
error: কপি করা থেকে বিরত থাকুন !!