রবিবার ১৩ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার   রবিবার ১৩ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

করোনাকালে রাজশাহীতে ফুল ও সবজি চাষে কলেজ শিক্ষকের সফলতা
প্রকাশ: ১৮ ডিসেম্বর, ২০২০, ৮:২৩ অপরাহ্ণ |
অনলাইন সংস্করণ

করোনাকালে রাজশাহীতে ফুল ও সবজি চাষে কলেজ শিক্ষকের সফলতা

ওমর ফারুক, রাজশাহী : করোনা পরিস্থিতিতে প্রতিষ্ঠান ছুটি পেয়ে অবসরে বসে না থেকে সেই সময়কে কাজে লাগিয়ে ফুল ও সবজি চাষ করে সফলতা পেয়েছেন রাজশাহী মহানগরীর খড়খড়ি বাইপাস এলাকার কলেজ শিক্ষক জামাল উদ্দিন। পড়ে থাকা পতিত জমিতে নার্সারি গড়ে তুলে এখন তিনি সেখান থেকে আয় রোজগারও করছেন। এখন সেখানে শুধু ফুলের সমারোহ। নার্সারিতে এখন প্রায় ১৫ ধরণের ফুল রয়েছে। অর্থ লগ্নি করে নার্সারি গড়ে এখন সেই ফুল বিক্রি করে অর্থ রোজগার করছেন। শিক্ষকতার পাশপাশি করোনাকালীন পরিস্থিতিতে অবসর সময়ে প্রায় ৯ মাস আগে থেকে তিনি এই সবজি ও ফুল বাগান তৈরি করেন। তিনি রাজশাহী পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজে শিক্ষকতা করেন।

নগরীর খড়খড়ি বাইপাস এলাকায় অবস্থিত তার নার্সারিতে গিয়ে সরজমিনে তার কথা কথা হলে তিনি জানান, চলতি বছরের মার্চ মাস থেকে করোনা সংক্রমণ যাতে অধিকহারে ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য স্কুল-কলেজ সরকারের পক্ষ থেকে বন্ধ ঘোষণা করে দেয়া হয়। কলেজ বন্ধ হওয়ার পর অবসর সময় পেয়ে তিনি বাড়ির পাশে পড়ে থাকা পতিত জমিতে সবজি চাষ করার সিদ্ধান্ত নেন। ওই মাস থেকেই তিনি বিভিন্ন ধরণের সবজি চাষ শুরু করেন। তিনি বেগুন, ঢেঁড়শ, করলা, কাঠুয়া, শাকসহ প্রায় ২২ ধরণের সবজি চাষ করেন। প্রচুর পরিমাণে সবজিও ফলে জমিতে। করোনাকালীন

পরিস্থিতে চারিদিকে মানুষের অভাব অনটন শুরু হওয়ায় উৎপাদন হওয়া সবজি তিনি বিক্রি করেননি। অসহায় গরীব মানুষ ও প্রতিবেশীদের মাঝে সেই সবজি তিনি বিতরণ করেন। আগস্ট মাস পর্যন্ত সবজি হয় ও তিনি তা বিতরণ করেন। পুরো জমির সবটুকু সবজি তিনি বিতরণ করে দেন। যখন থেকে অনলাইন ক্লাস শুরু হয়েছে তখন থেকে ক্লাস নেওয়ার পর বাকি সময় সবজি বাগানে পরিশ্রম করতেন।
এরপর সবজি চাষে আগ্রহ দেখে স্থানীয়দের মধ্যে অনেকেই তাকে ফুল চাষের পরামর্শ দেন। আগস্ট মাসের পর থেকে সেই জমিতে প্রায় ১৫ রকমের ফুল চাষ শুরু

করেন। ফুলগুলোর মধ্যে রয়েছে গাঁদা, ডালিয়া, চন্দ্রমল্লিকা, জিনিয়া, গোলাপ, ক্যালেনদোলা, কসমন ও চায়না ছাড়াও বিভিন্ন ধরণের ফুল। বীজতলা তৈরি থেকে শুরু করে বীজ ও অন্যান্য খরচ বাবদ প্রায় ৫০ হাজার টাকা খরচ করেন নার্সারি তৈরিতে।

প্রায় ৪ মাস আগে শুরু করা সেই নার্সারি এখন ফুলে ফুলে ভরে গেছে। গত ১ মাস থেকে তিনি ফুল বিক্রি শুরু করেছেন। এ পর্যন্ত তিনি ৮০ হাজার টাকার ফুল বিক্রি করেছেন। বাগানে আরো অনেক ফুল রয়েছে। প্রতিদিনই ফুল বিক্রি হচ্ছে। সব ফুল বিক্রি হলে লাখ টাকার উপরে ফুল বিক্রি হবে। ফুল চাষ করে অবসর সময় কাটানোর পাশপাশি তিনি আয় রোজগার করতে পারার কারণে অনেক দেশি ও বিদেশী বিভিন্ন

জাতের দামি ফুল চাষের চেষ্টা করছেন। কৃষি কর্মকর্তাদের পরামর্শ ও সহযোগিতা পেলে তিনি তার নার্সারিতে অনেক ফুল ফোটাতে পারবেন বলে জানান। তিনি তার নার্সারির নাম দিয়েছেন ইত্যাদি নার্সারি। নগরসহ বিভিন্ন জায়গা থেকে ব্যবসায়ীরা গিয়ে তার ফুল কিনে নিয়ে যাচ্ছে।
কলেজ শিক্ষক জামাল উদ্দিন বলেন, অবসর সময়কে কাজে লাগিয়ে প্রথমে সবজি ও পরে ফুল চাষ করেছি। সবজি চাষ করলেও করোনাকালীন হওয়ার কারণে বিক্রি করেনি। অসহায় ও কম আয়ের মানুষের মধ্যে বিতরণ করেছি। ফুল চাষের খরচ

বাদেও এখন অনেক টাকার ফুল বিক্রি করেছি। এখন আরো বিভিন্ন ধরণের ফুল চাষের চেষ্টা করছি। এখন থেকে সবজি ও ফুল চাষ অব্যাহত রাখবো। যারা অবসর বসে আছে বা চাকুরী খুঁজছে তারাও এমন ফুল ও সবজি চাষ করে নিজেই স্বাবলম্বি হতে পারে। তাহলে বেকারত্ব দূর হওয়ার পাশপাশি অর্থনৈতিকভাবে দেশ ও জাতি সমৃদ্ধি অর্জন করতে পারবে।




সর্বশেষ সংবাদ

পুরোন সংবাদ খুজুন
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  

সর্বাধিক পঠিত

প্রকাশক: সৈয়দ এমরান আলী রিপন

সম্পাদক: রোমান চৌধুরী

মোবাইলঃ ০১৭১১৯৫৭২৬৩ / 09639298200

অফিস : সৈয়দ মহল, জানুকি সিং রোড,কাউনিয়া,বরিশাল

ই-মেইলঃ barisalpress247@gmail.com

Design & Developed by
  সাভারে গৌরনদীর ছাত্রসহ জোড়া খুন, প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে গৌরনদীতে মানববন্ধন।   করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৪৭, নতুন আক্রান্ত ২,৪৩৬   ‘শর্ত একটাই, সম্মানি নেব এক টাকা’   ‘ইত্যাদি’র নিপু নয়, মারা গেছেন কৌতুক অভিনেতা মোস্তাফিজুর রহমান   পরীক্ষা এক বছর না দিলে ক্ষতি হবে না : শিক্ষামন্ত্রী   এবারও হজে যেতে পারবে না কেউ বাংলাদেশ থেকে   বঙ্গবন্ধু সেতুতে বাসের ধাক্কায় ট্রাক্টরে আগুন নিহত ২   জগন্নাথপুরে ৫টি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা   ইউটিউব দেখে গাঁজার কেক বানাত তারা   আজ ৬ লাখ টিকা নিয়ে দেশে আসছে চীন   মাস্ক না পরায় ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টকে ১০৮ ডলার জরিমানা   রামেক হাসপাতালে করোনায় আরো ১৩ জনের মৃত্যু   সেই ববি শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে এবার অ্যাওয়ার্ড প্রতারণার অভিযোগ   নবনিযুক্ত বিমান বাহিনী প্রধান শেখ আব্দুল হান্নান এর দায়িত্বভার গ্রহণ   ভোলায় দুই ছিনতাইকারী আটক   আরও ১৬ বীরাঙ্গনা পেলেন মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতি   কয়লা-বিদ্যুৎকেন্দ্রে জাপানি বিনিয়োগ বন্ধের দাবি তরুণ জলবায়ু কর্মীদের   ‘এয়ারপোর্ট রেস্টুরেন্ট’ থেকে ২০০ মরা মুরগি উদ্ধার   অসদাচরণের জন্য সাকিবকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা ও ৩ ম্যাচের বহিষ্কারাদেশ   রাজশাহীতে সর্বাত্মক লকডাউনে কঠোর প্রশাসন
error: কপি করা থেকে বিরত থাকুন !!