বুধবার ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ২রা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার   বুধবার ১৬ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বিচার শুরু সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলার
প্রকাশ: ২ ডিসেম্বর, ২০২০, ৮:৩৯ অপরাহ্ণ |
অনলাইন সংস্করণ

বিচার শুরু সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলার

 

নিউজ ডেস্কঃ রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীতে চাঞ্চল্যকর সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলায় ভাসুরসহ চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত।

বুধবার (২ ডিসেম্বর) ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

গত ৯ মার্চ ঢাকা মহানগর দায়রা জজ ইমরুল কায়েশ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) দেয়া অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন। ১৬ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে সগিরার ভাসুরসহ চারজনকে আসামি করে ১ হাজার ৩০৯ পৃষ্ঠার একটি অভিযোগত্র দাখিল করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম।

মামলার আসামিরা হলেন, সগিরা মোর্শেদের ভাসুর ডা. হাসান আলী চৌধুরী, তার স্ত্রী সায়েদাতুল মাহমুদা ওরফে শাহীন, হাসান আলীর শ্যালক আনাস মাহমুদ ওরফে রেজওয়ান এবং ভাড়াটে খুনি মারুফ রেজা।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, সগিরা মোর্শেদ সালাম ১৯৮৯ সালে ভিকারুননিসা নূন স্কুলে মেয়েকে আনতে যান। বিকেল ৫টার দিকে সিদ্ধেশ্বরী রোডে মোটরসাইকেলে আসা ছিনতাইকারীরা তার হাতে থাকা স্বর্ণের চুড়ি ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। নিজেকে বাঁচাতে দৌড় দিলে তাকে গুলি করা হয়। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

ওই ঘটনায় সেদিনই রমনা থানায় মামলা করেন তার স্বামী আব্দুস সালাম চৌধুরী। পরে মিন্টু ওরফে মন্টু ওরফে মরণের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দেয় পুলিশ। ১৯৯১ সালের ১৭ জানুয়ারি আসামি মন্টুর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক আবু বকর সিদ্দিক। সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয় সাতজনের। সাক্ষীতে মারুফ রেজা নামে এক ব্যক্তির নাম আসায় অধিকতর তদন্তের আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ।

ওই বছরের ২৩ মে অধিকতর তদন্তের আদেশ দেন আদালত। এর বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিভিশন মামলা (১০৪২/১৯৯১) করেন মারুফ রেজা। যিনি তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিকটাত্মীয় ছিলেন। ১৯৯১ সালের ২ জুলাই ওই তদন্তের আদেশ ও বিচারকাজ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে তদন্তের আদেশ কেন বাতিল করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। ১৯৯২ সালের ২৭ আগস্ট ওই রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত মামলার বিচারকাজ স্থগিত থাকবে মর্মে আরেকটি আদেশ দেয়া হয়।

২০১৯ সালের ২৬ জুন এ মামলার ওপর ২৮ বছর ধরে থাকা স্থগিতাদেশ তুলে নেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে মামলা ৬০ দিনের মধ্যে পিবিআইকে অধিকতর তদন্ত শেষ করতে নির্দেশ দেন।

একই বছরের ২০ নভেম্বর পিবিআইকে হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ তদন্তের জন্য আরও ৬০ দিনের সময় দেন। এরপর পিবিআই বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রেফতার করে। চারজনই হত্যার দায় স্বীকার করে বিচারিক আদালতে জবানবন্দি দেন।




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

পুরোন সংবাদ খুজুন
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  

সর্বাধিক পঠিত

প্রকাশক: সৈয়দ এমরান আলী রিপন

সম্পাদক: রোমান চৌধুরী

মোবাইলঃ ০১৭১১৯৫৭২৬৩ / 09639298200

অফিস : সৈয়দ মহল, জানুকি সিং রোড,কাউনিয়া,বরিশাল

ই-মেইলঃ barisalpress247@gmail.com

Design & Developed by
  সংবাদ সম্মেলনের বক্তব্য নিতে গেলে সাংবাদিককে পিটিয়ে আহত   বিনামূল্যে আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভায়া টেষ্ট পরীক্ষার উদ্বোধন   ২০ কোটি টাকার সম্পদ আত্মসাতের মামলা মামুনুল সহ ৪৩ জনের বিরুদ্ধে   গণমাধ্যমকর্মীদের ৪৫ শতাংশ মহার্ঘভাতা আইন অনুমোদনের জন্য চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে:প্রধানমন্ত্রী   বক্তা আবু ত্ব-হা আদনানের নিখোঁজের বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে দেখছি:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী   খাদ্য সঙ্কটে উত্তর কোরিয়া   বোরো উৎপাদনে নতুন রেকর্ড   চলে যাচ্ছে বয়স, হতাশ চাকরিপ্রার্থী তরুণরা   ৩ লাখ ৮০ হাজার পদ শূন্য রয়েছে সরকারি চাকরিতে   দেশের উত্তরাঞ্চলে হাসপাতালে তীব্র ডাক্তার সংকট   ফের গাজায় হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল   কোক নয়, পানি খান: রোনালদো   আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত থাকছেন নান্নু-বাশার প্যানেল   টেস্ট ও ওয়ানডে দুই ফরম্যাটের চুক্তিতেই ফিরছেন সাকিব   কাউখালী উপজেলা শিক্ষক কর্মচারী ইউনিয়ন এর সাধারণ সভা ও ত্রিবার্ষিক নির্বাচন-২০২১ অনুষ্ঠিত।   উহানের ল্যাবে জীবিত বাদুড়,নতুন করে প্রশ্নের মুখে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা   বরিশালে ইএসডিপি এর উদ্যোক্তা সৃষ্টি প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের সনদ বিতরণ।   টুঙ্গিবাড়িয়া ইউনিয়নে অবহেলিত ১ নং ওয়ার্ড বাসির সেবা করতে চান-রিপন কাজী   নলছিটির মগড় ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিন হাওলাদারের জয়জয়কার   ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে অবৈধবাজার ও স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান
error: কপি করা থেকে বিরত থাকুন !!