মঙ্গলবার ২৭শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ ১১ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
ই-পেপার   মঙ্গলবার ২৭শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

রাজিবপুরে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক অন্তঃসত্ত্বা সালেহার অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ
প্রকাশ: ১৬ অক্টোবর, ২০২০, ৮:৩৯ অপরাহ্ণ |
অনলাইন সংস্করণ

রাজিবপুরে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক অন্তঃসত্ত্বা সালেহার অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ
রাইসুল ইসলাম ফুল রাজিবপুর কুড়িগ্রামঃ
প্রথম বিয়ের ৩ বছর যেতে না যেতেই স্বামী মারা যায় মৃত ওসমান গনি ও মৃত কমেলা বেগমের ছোট মেয়ে ছালেহা খাতুনের (৩৫)। এ বছরের জানুয়ারী মাসে প্রেম-ভালবাসা করে দ্বিতীয় বিয়ে হয় একই গ্রামের সরোয়ার হোসেন ও আছমা বেগমের পুত্র এরশাদ আলীর (২৫) সঙ্গে। স্ত্রীর বয়স ১০ বছর বেশি হওয়ায় বিয়ের পর থেকে স্বামী এরশাদ ও শাশুরী আছমা বেগম অকারণে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতো ছালেহার উপর। মাত্র চার মাস ঘর-সংসারের পর পরিবারের তোপের মুখে ছালেহাকে তালাক দেয় দ্বিতীয় স্বামী এরশাদ আলী। বাবা-মা হারা ছালেহার আশ্রয় হয় চাচাতো ভাই শাহজামালের বাড়ীতে।বিবাহ বিচ্ছেদের এক মাস পর থেকে এরশাদ তালাক দেয়া স্ত্রী ছালেহার সাথে আবারও সংসার বাঁধার আশ্বাস দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এতে গর্ভবতী হয়ে যায় ছালেহা। বিষয়টি এরশাদকে জানানোর পর নানা ধরণের পায়তারা করে দিন পার করতে থাকে এরশাদ। অপর দিকে ছালেহার পেটে বেড়ে উঠতে থাকে এরশাদের সন্তান। কোন উপায়ান্ত না পেয়ে ছালেহা গ্রাম্য মাতব্বরদের বিষয়টি খুলে বলে। এতে গ্রাম্য সালিশ অমান্য করে এরশাদ ও তার পরিবার। এখন ছালেহা ৬ মাসের গর্ভবতী। ইতোমধ্যে এরশাদ লুকিয়ে আরও একটি বিয়েও করেছে।অসহায় ছালেহা অভিযোগ করে বলেন, ‘আমাকে তালাক দিবার এক মাস পর থিকা মোবাইলে ভাল ভাল কথা কইছে। আমার কাছে মাফ চাইছে। কইছে, “আমার ভূল অইছে, বাপ-মায়ের কথায় তোমাকে তালাক দিছি। এমন ভূল আর করবো না। আমি তোমাকে আবার নিমু (বিবাহ করবে)।” এইসব কথা কইয়া আমাকে বার বার বিছানায় নিয়া গেছে। আমার গর্ভে এরশাদের ৬ মাসের বাচ্চা আছে। এহন আরও একটা বিয়া করছে। আমার সাথে কথা কয় না, নানান ধরনের হুমকি দেয়। কয় মাইরা লাশ গুম করবে। গ্রামের মাতাব্বররা সালিশ করছে, সালিশ মানে নাই। পরে মাতাব্বররা আমাকে আইনের আশ্রয় নিবার কইছে, তাই থানায় মামলা করছি।’ আমার পেটের বাচ্চা নিয়া আমি যামু কই? আমার কি হইবো? আমার বাচ্চার কি হইবো? এমন হাজারো প্রশ্নে কান্নায় ভেঙ্গে পরে ছালেহা। গর্ভে থাকা সন্তানের বাবার স্বীকৃতি চান তিনি।এ সম্পর্কে অত্র এলাকার দুলাল হোসেন ও শাহজাহান জানান, “মেয়েটি অসহায়, বাবা-মা নাই, ওর সাথে যা হয়েছে এটা খুবই খারাপ হয়েছে। গ্রামে কয়েক দফায় বিচার বসেছিল। ছেলের পরিবার বিচারের রায় মানে নাই। এজন্য আইনের আশ্রয় নিতে বলা হয়েছে। যাতে সঠিক বিচার পায়।”বিষয়টি নিয়ে অভিযুক্ত এরশাদ আলীকে ০১৭৫৬৮০৮৫৫৭ নম্বরে ফোন করলে, একই এলাকার বাদশা নামের এক ব্যক্তি ফোন রিসিভ করে সাংবাদিককে নানা ধরণের হুমকি প্রদান করে এবং গালমন্দ করে। এ বিষয়ে রাজীবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নবীউল হাসান জানান, ‘অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।




এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

প্রকাশক: সৈয়দ এমরান আলী রিপন

সম্পাদক: রোমান চৌধুরী

মোবাইলঃ ০১৭১১৯৫৭২৬৩ / 09639298200

অফিস : সৈয়দ মহল, জানুকি সিং রোড,কাউনিয়া,বরিশাল

ই-মেইলঃ barisalpress247@gmail.com

Design & Developed by
  একেবারে আলু শূন্য হয়ে পড়েছে গৌরনদী ও আগৈলঝাড়ার হাট-বাজারগুলো   চরমোনাইতে প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে শারীরিক সম্পর্ক, অবৈধ গর্ভপাত, অতঃপর!!   গৌরনদী থেকে শ্বশুর বাড়ি বেড়াতে গিয়ে লাশ হলো যুবক।   দিনাজপুর-বোচাগঞ্জ সড়কে জালানী ভর্তি লরি উল্টে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন   রাজশাহীতে ২ ও বিভাগে ২৬ জনের করোনা শনাক্ত   রাজশাহীতে পুলিশের অভিযানে আটক ৪৬   রাজশাহীতে অজ্ঞাত রিক্সা চালকের মৃত্যু   তাহেরপুরে মন্দির পরিদর্শনে রাজশাহী রেঞ্জ ডিআইজি   দেহরক্ষীসহ র‌্যাব হেফাজতে হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান |   দিনাজপুর-বোচাগঞ্জ সড়কে জালানী ভর্তি লরি উল্টে যানবাহনের দীর্ঘ লাইন   পাবনা ভাংগুড়ায় প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দুর্গোৎসব   নাটোরের বড়াইগ্রামে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে খামারীর মৃত্যু   নাটোরের বড়াইগ্রামে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে খামারীর মৃত্যু   নওগাঁর আত্রাইয়ে প্রতিহিংসার বিষে মরলো ১৫ লক্ষ টাকার মাছ   তালতলীতে পুকুরে ডুবে শিশুর মৃত্যু   নওগাঁর রাণীনগরে একটি তালগাছে গাছের তিনটি মাথা   মির্জাগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে স্কুল ছাত্রের মৃত্যু   বলেশ্বর নদী থেকে ৩১ হাজার মিটার জাল আটকের পর পুড়িয়ে দিয়েছে নৌবাহিনী   অযন্তে ও অবহলোয় ঐতিহ্যের স্বাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে বাগেরহাটের সদর উপজেলায় অবস্থিত কোদলা মঠ বা অযোদ্ধা মঠ   নৌবাহিনীর লেফটেন্যান্ট ওয়াসিমকে জনগণই রক্ষা করে |